শনিবার,১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং,১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৯:৩৪
নেতা নয়, সেবক হতে চাই: শেখ তন্ময় ভোটকক্ষে সাংবাদিকরা যা করতে পারবেন, যা পারবেন না ফখর উদ্দিন মোহাম্মদ স্বপনের শেরে-বাংলা পদক লাভ ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কলমাকান্দা ইউএনও’র অনন্য নজির জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত, থাকবে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় ক্রিকেটে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার আশাবাদ প্রধানমন্ত্রীর

পাঠাও সেবার পেমেন্ট বিকাশ করা যাবে

2 weeks ago , বিভাগ : অর্থনীতি,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: এখন থেকে বিকাশ করা যাবে পাঠাও রাইডের পেমেন্ট । এ লক্ষ্যে দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ লিমিটেডের সাথে দ্রুততম সময়ের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা অ্যাপ ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা পাঠাও-এর একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

সম্প্রতি বিকাশের প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিকাশের চিফ কর্মাশিয়াল অফিসার মিজানুর রশীদ এবং পাঠাও-এর কো-ফাউন্ডার ও চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার হুসাইন এম ইলিয়াস নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

বিকাশের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কামাল কাদীর, চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার মইনুদ্দিন মোহাম্মদ রাহগীর, চিফ টেকনোলজি অফিসার আজমল হুদা এবং পাঠাও-এর চিফ ফিন্যান্স অফিসার ফাহিম আহমেদ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এই চুক্তির ফলে পাঠাও অ্যাপ থেকেই সহজে বিকাশ পেমেন্টে ভাড়া পরিশোধ করা যাবে। রাইডের পেমেন্ট বিকাশ করতে গ্রাহক কে রাইড শেষে পেমেন্ট অপশন হিসেবে ‘ডিজিটাল পেমেন্ট’ নির্বাচন করতে হবে। পরবর্তী ধাপে অন্যান্য ডিজিটাল পেমেন্ট অপশনগুলোর মধ্যে থেকে বিকাশ নির্বাচন করলে সুরক্ষিত বিকাশ পেমেন্ট পেজ ভেসে উঠবে পাঠাও অ্যাপে। সবশেষে বিকাশ পেমেন্ট পেজে বিকাশ অ্রাকাউন্ট নম্বর, ভেরিফিকেশন কোড এবং বিকাশ পিন দিয়ে পেমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে।

বিকাশ দিয়ে পেমেন্টের সুযোগ থাকায় পাঠাও রাইডের পেমেন্টের জন্য ক্যাশের ওপর নির্ভরতা দূর হবে এবং রাইড পেমেন্ট হবে স্বাচ্ছন্দ্যময়। আগামীতে বিকাশ দিয়ে পাঠাও রাইডের পেমেন্টে গ্রাহকদের জন্য থাকবে আকর্ষণীয় অফার। পাঠাও ফুড ডেলিভারি এবং পার্সেল সার্ভিসের পেমেন্টও বিকাশে দেওয়ার সুবিধা চালু হবে খুব শিগগিরই।

২০১১ সালে কার্যক্রম শুরু করা বিকাশ লিমিটেড ব্যাংকিং সেবার বাইরে এবং ভেতরে থাকা বাংলাদেশের একটি বিশাল জনগোষ্ঠীকে নানা ধরনের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস দিয়ে আসছে। বিকাশ-ব্র্যাক ব্যাংক, ইউএস ভিত্তিক মানি ইন মোশন, ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের অর্ন্তগত প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং অ্যান্ট ফিন্যান্সিয়ালের যৌথ মালিকানাধীন একটি প্রতিষ্ঠান।

২০১৫ সালে হুসাইন এম ইলিয়াস এবং সিফাত আদনানের উদ্যোগে যাত্রা শুরু করে পাঠাও। অবকাঠামোগত সমস্যা কমিয়ে বাস্তব ভিত্তিক সমাধানের লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করা পাঠাও এশিয়ার দ্রুত সম্প্রসারিত স্টার্টআপগুলোর অন্যতম। উদ্যোক্তাদের সাথে গ্রাহকদের সংযোগ ঘটানোর অনন্য প্ল্যাটফর্ম পাঠাও, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যকে তরান্বিত করছে। বর্তমানে রাইড শেয়ারিং, ফুড ডেলিভারি এবং ই-কমার্সের লজিস্টিক সার্ভিসের ক্ষেত্রে নেতৃস্থানীয় প্রতিষ্ঠান পাঠাও সব ধরনের সেবা একটি প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসার লক্ষ্যে কাজ করছে। মোটরবাইক, কার এবং বাইসাইকেলের সহ বৈচিত্র্যময় বাহনকে প্রযুক্তি শক্তি মাধ্যমে ব্যবহারে এশিয়ার এক ভিন্ন চেহারা নির্মাণে কাজ করছে।সূত্র:এনটিভি ‍নিউজ

আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ