শুক্রবার,২২শে জুন, ২০১৮ ইং,৮ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১১:২২
বদলগাছীতে ট্রাকের ধাক্কায় শিশু নিহত দুই সন্তানকে হত্যা করে বাবার আত্মহত্যা আশুলিয়ায় সুটকেসের ভেতর লাশ বাকশাল পদ্ধতির প্রশ্নই উঠে না: তথ্যমন্ত্রী কন্যা সন্তানের মা হলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী রায়গঞ্জে বাস খাদে পড়ে নিহত ২ ৬০ বছর পর গ্রুপ পর্বে বড় ব্যবধানে হারল আর্জেন্টিনা

পরিচালন মুনাফা বেড়েছে বেশির ভাগ ব্যাংকের

6 months ago , বিভাগ : অর্থনীতি,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  কয়েকটি ব্যাংকে মালিকানা ও ব্যবস্থাপনায় বড় ধরনের রদবদল, আমদানি বেড়ে যাওয়ায় বৈদেশিক মুদ্রাবাজারে টানাপড়েনসহ নানা ধরনের অস্থিরতার মধ্যে দিয়ে বিদায়ী বছর পার করল ব্যাংক খাত। তবে রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকায় ঋণ প্রবৃদ্ধিতে গতি ছিল।

আবার আমদানি-রপ্তানির বিপরীতে চার্জ ও কমিশন থেকেও ভালো আয় করেছে ব্যাংকগুলো। শেয়ারবাজারে বড় কোনো ওঠানামা না হওয়ায় সেখান থেকেও কিছু আয় হয়েছে। সব মিলিয়ে বিদায়ী বছরটিতে বেশির ভাগ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফার পাল্লা ভারী।

গত ৩১ ডিসেম্বর ছিল ব্যাংক ক্লোজিং। ওই দিন ব্যাংকিং লেনদেন বন্ধ রেখে আয়-ব্যয়ের হিসাব মেলায় ব্যাংকগুলো। ব্যাংকগুলোর অভ্যন্তরীণ সূত্র সংগৃহীত তথ্যে দেখা যায়, ৩০টিরও বেশি ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। শুধু দি সিটি ও ফারমার্স ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা কমেছে। ফারমার্স ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা কমে ২৬ কোটি টাকায় নেমেছে।

গত বছর ব্যাংকটির মুনাফা হয়েছিল ৯২ কোটি টাকা।

ব্যাংকগুলোর মধ্যে পরিচালন মুনাফায় শীর্ষে রয়েছে বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক। ব্যাংকটি এবার দুই হাজার ৪২০ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছে। আগের বছর পরিচালন মুনাফা হয়েছিল দুই হাজার তিন কোটি টাকা।
ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স, বাংলাদেশের (এবিবি) সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নুরুল আমিন বলেন, ‘ব্যাংক খাতে জালিয়াতি বা খেলাপি ঋণ বাড়লেও ব্যবসা কিন্তু থেমে নেই। ব্যাংকের মতো এ রকম চলমান ব্যবসায় মুনাফা হবেই। যদি ঋণ প্রবৃদ্ধি না-ও হয়, তার পরও পরিচালন মুনাফা বাড়ে। কেননা আগে দেওয়া ঋণসহ সার্বিক কার্যক্রম থেকে স্বাভাবিক নিয়মে মুনাফা আসে।

শেয়ারবাজারের জন্য মূল্য সংবেদনশীল বিবেচনায় তালিকাভুক্ত ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা প্রকাশের ওপর নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। ব্যাংকগুলো বিএসইসির কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এ তথ্য দেওয়ার পর স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে তা প্রকাশ করা হয়। এ জন্য বেশ সময় লেগে যায়।

তবে বিভিন্ন উৎস থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, বেশির ভাগ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। অবশ্য পরিচালন মুনাফা ব্যাংকের প্রকৃত মুনাফা নয়। এখান থেকে ঋণের শ্রেণিমান বিবেচনায় নির্ধারিত হারে প্রভিশন বা নিরাপত্তা সঞ্চিতি সংরক্ষণ ও সরকারকে ৪০ শতাংশ হারে কর পরিশোধের পর নিট মুনাফা হিসাব হবে। সাধারণত পরিচালন মুনাফা বাড়লে নিট মুনাফাও বাড়ে।

ব্যাংক কর্মকর্তারা জানান, ঋণ বিতরণের বিপরীতে সুদ এবং বিভিন্ন কমিশন ও চার্জ থেকেই বেশি আয় হয় ব্যাংকগুলোর। এ ছাড়া শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ থেকেও আয়ের একটি অংশ আসে। গত অক্টোবর পর্যন্ত বেসরকারি খাতে ১৮.৬৩ শতাংশ ঋণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। আমদানি বেড়েছে ২৯ শতাংশের মতো। আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ডলার বেচাকেনা থেকেও বাড়তি আয় এসেছে ব্যাংকগুলোর।

সূএ: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ