রবিবার,২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং,৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৯:৪১
লালমনিরহাটে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাদক বিক্রেতা আটক পালাতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ দেয়া যুবকের মরদেহ উদ্ধার এক মিনিটের জন্যেও বাইরে থাকতে পারছিলাম না’ কাউখালীতে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে সাজানো গুম মামলা ॥ ভিকটিম যুবক উদ্ধার নাটোরে সাংবাদিককে হত্যার হুমকি॥ থানায় জিডি লালপুরে সাপ কামড়ে মৃত্যু! মাদকবিরোধী ক্লাস নিলেন র‌্যাব কর্মকর্তা

নেছারাবাদ (স্বরুপকাঠীতে) ভ্রাম্যমান আদালতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জরিমানা ও গ্রেফতার

সুমন খান বরিশাল স্বরুপকাঠী প্রতিনিধিঃ
নেছারাবাদ স্বরুপকাঠীতে বিভিন্ন ভাবে বিগত বহু বছর থেকে নানান অপকর্ম কাজ চলে আসছে কিন্ত, সহ সাধারন ভোক্তাদের ঠকাচ্ছে যএতএ ভাবে। বন্দরের ব্যবসায়ী সহ বিভিন্ন সেবা মুলক প্রতিষ্ঠানে নানান কায়দায় প্রতারনা করে আসছে। জেলার গন মাধ্যম কর্মীরা বিভিন্ন সময়ে লেখনী দিয়ে গন সচেতনার পথ সৃস্টি করার চেস্টা করে আসছে।তারপরও এদের অপরাধ বন্ধ হয়নি। তবে খাদ্য অধিদপ্তর সহ প্রশাসনের টনক নড়েছে নীতিগত ভাবে।আর তারই ধারাবাহিকতায় ভোক্তা অধিকার আইন প্রয়োগ করেন নেছারাবাদের জগন্নাতকাঠীর বাজারে।
বুধবার সকাল এগারোটায় সময়ে নেছারাবাদের সাহসী ভুমি কর্মকর্তা এক ঝটিকা অভিযান ( ভ্রাম্যমান আদলত) পরিচালনা করেন। সাধারন মানুষের কল্যানের জন্য বিশেষ ভুমিকা পালন করার উদ্দোগ নেন ম্যাজিস্টেট সহ স্থানীয় প্রশাসন ও বরিশাল RAB 8। সাংবাদিকরা বিভিন্ন সময়ে হাসপাতাল সহ ক্লিনিকের সেবার মান, এম আরদের দৌরাত্ব ও ক্লিনিকের সেবা নিয়ে বার বার লেখা হয়েছে বিভিন্ন জাতীয় পএিকায়।
এ ছাড়াও বিভিন্ন মুদি মনোহারী দোকানের অসৎ কারসাজির কথাও লেখা হয়েছে বার বার। এ ব্যাপারে সাধারন ক্রেতারা ক্ষোভের সাথে বলেন,সাংবাদিক লিখেছে তার পরও ভাল হয়নি এদের চরিএ। প্রশাসনের এই জাতীয় উদ্দোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে সাধারন মানুষ সহ মিডিয়ার কর্মীরা।
এদিকে ভ্রাম্যমান আদালত হাসপাতালের এম আর স্কয়ারের ও পপুলারের প্রতিনিধিকে ১৫.০০০ হাজার করে জরিমানা করেন। স্বরুপ ডায়াঃ সেন্টারে ৩০.০০০/,নোভাকে ৪০.০০০/মেডিনোভা২০.০০০/,মেডি ক্লিনিকে ৪০.০০০/,নেছারাবাদ ল্যাব ১৫.০০০/ ও এপেক্সকে ১.০০০০০/ টাকা জরিমানা করেন। অন্যদিকে মুদি দোকানদার মিঠুন সাহা ২২.০০০/,গোপাল সাহা ৫০.০০০/ জহর লাল ঘোষ ৫০.০০০০/, রফিক দোকানদারকে ১০.০০০ টাকা জরিমানা কররেন। এছাডাও অনাদায়ে তিনজনকে গ্রেফতার করেন।
এ ব্যাপারে ম্যাজিস্টেট মিডিয়াকে জানান,বন্দরে নানান অনিয়ম চলছিল তাই ভোক্তা অধিকার আইন ধারা ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় অভিযান পরিচালনা করি। সর্বশেষ বন্দরের অভিযানে ক্রেতারা বেজায় খুশি আর এ জন্য প্রশাসন সহ মিডিয়াকে সাধুবাদ জানিয়েছে এলাকার মানুষ। এ ব্যাপারে তাদের দাবী আগামীতে সততা ক্লিনিক সহ পশ্চিম পাড় বন্দরে সাড়াশী অভিযান চায় এলাকাবাসীরা।

আপনার মতামত লিখুন

বরিশাল,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ