শনিবার,২৫শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং,১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৩:৪৮
৭ মার্চের ভাষণ : আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু পার্বতীপুরে আদিবাসি সমাজ উন্নয়ণ সমিতির সংবাদ সম্মেলন ‘আনন্দ শোভাযাত্রা’ শুরু আজ দেশজুড়ে আনন্দ শোভাযাত্রা পার্বতীপুর প্রগতি সংঘের নির্বাচন সম্পন্ন — সভাপতি আনোয়ারুল – সম্পাদক আমজাদ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ যেতে চাই: রুবেল

নতুন চার বডি টাইপ ও তার ডায়েট, ওয়ার্কআউট

4 months ago , বিভাগ : বিনোদন,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ত্রিভূজাকৃতি, ডিম্বাকৃতি বা আয়তাকার। এই ধরনের বডি টাইপের কথা আমরা শুনে এসেছি। সেই অনুযায়ী ডাক্তার, নিউট্রিশনিস্টদের কথা শুনে খাওয়া-দাওয়া, এক্সারসাইজও করেছি। বিখ্যাত কায়রোপ্র্যাক্টর এরিক বার্গ মানুষের শরীরকে ভাগ করেছেন কিছু অঙ্গের গঠন মেনে। সেই অনুযায়ীই ডায়েট ও এক্সারসাইজের পরামর্শ দিয়েছেন উনি। এরিক বার্গের বডি টাইপ চার্ট মেনেই ডায়েট ও শরীরচর্চার পরামর্শ দিচ্ছেন আধুনিক নিউট্রশনিস্ট, ফিটনেস এক্সপার্টরা।

অ্যাড্রিনাল শেপ
এই ধরনের গঠনে সাধারণত শরীরের মধ্যভাগে ফ্যাট জমে। কারণ শরীরের সব জরুরি অঙ্গ এই অংশেই থাকে। তাই স্ট্রেসের কারণে কর্টিসল বাড়তে থাকলে অ্যাড্রিনাল গ্ল্যান্ড সক্রিয় হয়ে ওঠে। তা ছাড়াও কম ঘুম, বেশি চিন্তার কারণেও পেটে মেদ জমতে থাকে। ক্লান্তি ও চুল পড়ে যাওয়াও এদের অন্যতম সমস্যা।

ওয়ার্কআউট
পেটের চর্বি কমানোর জন্য প্রতি দিন এক্সারসাইজ করা প্রয়োজন। অন্তত ২০ মিনিট ক্রাঞ্চ, লেগ লিফটের মতো ব্যায়াম করলে বেশি চর্বি জমতে পারবে না।

ডায়েট
খুব বেশি নোনতা ও ফ্যাটি খাবার থেকে দূরে থাকুন। এই ধরনের শরীর এই জাতীয় খাবারগুলোই বেশি খেতে চায়। তার বদলে তাজা ফল, লো ফ্যাট ডেয়ারি প্রডাক্ট, জটিল কার্বোহাইড্রেট খান বেশি করে।

ওভারি শেপ
সরু কাঁধ ও চওড়া নিতম্ব এই শেপের বৈশিষ্ট্য। তলপেটে একটু ভুঁড়ি থাকে। ওভারি যখন ঠিকঠাক কাজ করে তখন শরীরও ভালো থাকে। কিন্তু যদি ইস্ট্রোজেনের মাত্রা বেড়ে যায় তা হলে শরীরের নিচের অংশে ফ্যাট জমতে থাকে, নিতম্ব ভারী হতে থাকে।

ওয়ার্কআউট
এই ধরনের শরীরে খুব সহজে পেশি ক্ষয় হয়। তাই হালকা ওজন নিয়ে হাত ও পায়ের এক্সারসাইজ ওভারি শেপের জন্য সবচেয়ে প্রয়োজনীয়। স্কোয়াট বা পুশআপ করলে উপকার পাবেন।

ডায়েট
যাদের শরীরের গঠন এ রকম হয় তারা চিনি বা মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন। তাই মেদ বশে রাখতে হলে প্রথমেই রিফাইন্ড সুগার বাদ দিতে হবে। ফল ও খেজুর বেশি করে খেতে হবে। সেই সঙ্গেই বাড়াতে হবে প্রোটিনের পরিমাণ। সয়া, লিন মিট, ডাল অ্যাভোকাডো খাওয়া জরুরি।

লিভার শেপ
শরীর থেকে টক্সিন দূর করতে লিভারের ভূমিকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। পরিপাকক্রিয়া সঠিক রেখে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে লিভার। এই লিভার ঠিকঠাক কাজ না করলে বুকের ঠিক নিচ থেকেই ভুঁড়ি বাড়তে থাকে। হাত, পায়ের গঠনও নষ্ট হতে পারে। দেখতে মোটা লাগলেও এদের বডি ফ্যাটের পরিমাণ কম থাকে। শরীরের বেশির ভাগটাই থাকে ফ্লুইড। খাওয়ার পর প্রায়ই এসিডিটির সমস্যায় ভোগেন এরা।

ওয়ার্কআউট
শরীরের শেপ ঠিক রাখার জন্য এদের জন্য কার্ডিও এক্সারসাইজ খুবই উপকারি। এ ছাড়াও পার্কে গিয়ে বা ট্রেডমিলে জগিং করতে পারলেও উপকার পাবেন। বডি ফ্যাটের পরিমাণ কম থাকার জন্য পাইলেটস বা এলিপটিক্যালের মতো পেশীর জোর বাড়ানোর এক্সারসাইজ করা যেতে পারে।

ডায়েট
অ্যালকোহল থেকে দূরে থাকুন। টাটকা সবজি, স্যালাড, দানাশস্য যত খেতে পারবেন ততই ভালো। সকালে উঠে তাজা ফল খেয়ে দিন শুরু করুন।

থাইরয়েড শেপ
থাইরয়েড গ্ল্যান্ড আমাদের শরীরের মেটাবলিজম নিয়ন্ত্রণ করে। তাই থাইরয়েড গ্ল্যান্ড যদি ঠিকঠাক কাজ না করে, শারীরিক সমস্যা হবেই। যাদের থাইরয়েড গ্ল্যান্ড সংক্রান্ত স‌মস্যা থাকে তাদের শরীরের সব অংশে ফ্যাট জমার প্রবণতা থাকে। সেই সঙ্গেই ডবল চিন, নখ ভেঙে যাওয়া বা পাফি আইজ খুব বড় সমস্যা এদের। নিয়মিত হজমের সমস্যা, মনোসংযোগের অভাবও হয়ে থাকে।

ওয়ার্কআউট
থাইরয়েড বডি টাইপদের জন্য যোগাসনই সেরা বলে থাকেন ফিটনেস এক্সপার্টরা। কারণ সমস্যার গভীরে গিয়ে যে কোনও গ্ল্যান্ডের কার্যকারিতা স্বাভাবিক করতে পারে যোগ। সপ্তাহে তিন দিন হাঁটা বা জগিংয়ের অভ্যাস করাও ভাল।

ডায়েট
ভাত, চিনি, ময়দা, হোয়াইট ব্রেডের মতো যে কোনও সাদা খাবার বাদ ও কফি বাদ দিতে হবে। দানাশস্য, রাঙা আলুর মতো জটিল কার্বোহাইড্রেট, ডিম, চিকেন, সেদ্ধ সব্জি বেশি করে খেতে হবে। বেশি ফল খেলেও সমস্যা হতে পারে। ফলের মধ্যে সুক্রোজ থাইরয়েড গ্ল্যান্ডকে উত্তেজিত করে তুলতে পারে।

আপনার মতামত লিখুন

বিনোদন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ