শুক্রবার,২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং,১০ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৫:৫০
চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলো ‘ব্যবহার অনুপযোগী’ দগ্ধদের চিকিৎসার সব খরচ বহন করবে সরকার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিহতদের স্মরণে শুক্রবার মসজিদে বিশেষ মোনাজাত জলঢাকায় ভাষা শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন” ছাতকের রাউলী স্কুলে মাতৃভাষা দিবস পালিত জলঢাকায় ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাতে সর্বস্তরের মানুষ ঢল দিনাজপুরে অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি’র শহীদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী

পবিত্র কোরআনের আলো ধা রা বা হি ক

দোয়া করার আদব ও শিষ্টাচার

1 month ago , বিভাগ : ধর্ম,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ৩. স্মরণ করো, যখন সে [জাকারিয়া (আ.)] তার রবকে নিভৃতে ডেকেছিল। [সুরা : কাহফ, আয়াত : ৩ (চতুর্থ পর্ব)]

তাফসির : এ আয়াতের মূল কথা হলো, জাকারিয়া (আ.)-এর কোনো সন্তান ছিল না। বৃদ্ধ বয়সে সন্তানের আশা তাঁকে ব্যাকুল করে তোলে। তিনি কায়মনোবাক্যে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করেছেন। আল্লাহ তাঁর দোয়া কবুল করেছেন। প্রসঙ্গক্রমে এখানে দোয়া করার কিছু আদব ও শিষ্টাচার তুলে ধরা হলো—

এক. আল্লাহর হামদ ও রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর ওপর সালাত (দরুদ) পাঠ করে দোয়া করা। রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘তোমাদের কেউ যখন দোয়া করে, তখন সে যেন আল্লাহর হামদ (প্রশংসা) ও তাঁর গুণগান দিয়ে দোয়া শুরু করে। অতঃপর সে যেন আল্লাহর রাসুলের প্রতি দরুদ পাঠ করে। এরপর যা ইচ্ছা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করে।’ (আবু দাউদ, হাদিস : ১৪৮১; তিরিমিজি, হাদিস : ৩৪৭৭)।

দুই. আল্লাহর সুন্দর সুন্দর নাম ও তাঁর মহৎ গুণাবলি বর্ণনা করে দোয়া করা। ইরশাদ হয়েছে, ‘আল্লাহর রয়েছে সুন্দর সুন্দর নাম। অতএব, তোমরা তাঁকে সেসব নামে ডাকো।’ (সুরা আরাফ, আয়াত : ১৮০)।

তিন. নিজের কল্যাণের জন্য দোয়া করবে, অন্যের অনিষ্ট সাধন বা ক্ষতির উদ্দেশ্যে দোয়া করবে না।

হাদিস শরিফে এসেছে, ‘বান্দার দোয়া কবুল হয়, যদি তাতে পাপ বা আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্ন করার কথা না থাকে।’ (মুসলিম, হাদিস : ২৭৩৫)।

চার. দোয়ায় দুই হাত উত্তোলন করা। হাদিস শরিফে এসেছে, ‘নবী করিম (সা.) দুই হাত তোলেন এবং বলেন, হে আল্লাহ! খালেদ যা করেছে, আমি সে ব্যাপারে তোমার কাছে দায়িত্বমুক্ত।’ কথাটি তিনি দুবার বলেন। (বুখারি, হাদিস : ৪৩৩৯)।

পাঁচ. দোয়ার সময় কিবলামুখী হওয়া মুস্তাহাব। আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত, নবী করিম (সা.) কাবা শরিফের দিকে মুখ ফিরিয়ে কয়েকজন কোরাইশ নেতার বিরুদ্ধে দোয়া করেন। (বুখারি, হাদিস : ৩৯৬০ ও মুসলিম, হাদিস : ১৭৯৪)।

ছয়. আল্লাহ সম্পর্কে ভালো ধারণা নিয়ে দোয়া করা। হাদিসে কুদসিতে এসেছে, ‘মহান আল্লাহ বলেন, আমার বান্দা আমার প্রতি যেমন ধারণা রাখে, আমি তার সঙ্গে তেমন।’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৭৪০৫)।

সাত. গভীর মনোযোগের সঙ্গে আল্লাহর কাছে দোয়া করা। কেননা উদাসীন ব্যক্তির দোয়া কবুল হয় না। এ বিষয়ে হাদিস শরিফে এসেছে, ‘জেনে রেখো, আল্লাহ কোনো উদাসীন অন্তরের দোয়া কবুল করেন না।’ (সুনানে তিরমিজি, হাদিস : ৩৪৭৯)।

আট. ভালো কাজের অছিলা দিয়ে দোয়া করা। মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন, ‘হে ঈমানদাররা, আল্লাহকে ভয় করো এবং তাঁর নৈকট্য লাভের জন্য অছিলা অন্বেষণ করো…।’ (সুরা মায়িদা, আয়াত : ৩৫)।

তা ছাড়া সহিহ হাদিসে এমন তিন ব্যক্তির কথা বর্ণনা করা হয়েছে, যারা ঝড়-বৃষ্টির এক রাতে পাথর ধসে পাহাড়ের গুহায় আটকা পড়েছিল। তাদের প্রত্যেকে তখন নিজের নেক আমলের অছিলা দিয়ে দোয়া করে।…মহান আল্লাহ তাদের দোয়া কবুল করে তাদের বিপদমুক্ত করেন। (বুখারি ও মুসলিম)।

গ্রন্থনা : মুফতি কাসেম শরীফ

সূত্র:কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

ধর্ম বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ