বুধবার,১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং,২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১১:০২
অবকাঠামো ও জ্বালানি খাতে ফরাসি বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পার্বতীপুরে শিক্ষক সমিতির ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল সম্পন্ন সৈয়দপুরে স্কুল মাঠে পাথড় ও পিচ গলানো হচ্ছে পার্বতীপুরে মধ্যপাড়া পাথর খনির ৪৫ শ্রমিক পুরস্কৃত এবার হাইকোর্টে ক্ষমা চাইলেন লক্ষ্মীপুরের সেই এডিসি মগবাজারে গ্যাসের আগুনে দগ্ধ ৩ সেলুনকর্মী তাঁরা এলেন ‘ম্যাজিস্ট্রেট’ হয়ে, গেলেন আসামি হয়ে

তরুণরাই বাংলাদেশকে আরো বড় বানাবে, বিশ্বাস সাকিবের

2 months ago , বিভাগ : খেলাধুলা,

মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: তখন বিশ্রামে সাকিব আল হাসান। ইনজুরির কারণে খেলতে পারলেন না তামিম ইকবাল। আর অভিজ্ঞ দুই সেনানী ছাড়া ব্লমফন্টেইনে ইনিংস ব্যবধানেই হারতে হলো টাইগারদের। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে। তারপরই তুমুল সমালোচনা তরুণদের নিয়ে গঠিত বাংলাদেশ দল নিয়ে। এখনই তরুণদের এতো বড় প্লাটফর্মে তুলে আনায় টিম ম্যানেজমেন্টকে কাঠগড়ায় দাঁড় করান অনেকে। কিন্তু সমালোচকদের পথে হাঁটছেন না সাকিব। তরুণদের পক্ষেই কথা বললেন বিশ্বসেরা এই অল রাউন্ডার। তরুণরাই তাদের মতো সিনিয়রদের কাজ সহজ করে দিচ্ছেন বলে মনে করেন তিনি। আর তাদের দলে নেওয়ার গুরুত্বটাও জানিয়ে দিলেন দারুণ যুক্তির সাথে।

এক সময়ে দাপট দেখিয়ে বেড়ানো অস্ট্রেলিয়া দল এখন অনেকটাই খর্বশক্তির। অল্প সময়ের ব্যবধানে গ্লেন ম্যাকগ্রা, শেন ওয়ার্ন, রিকি পন্টিং, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, মেথ্যু হেইডেন, মাইক হাসি, মাইকেল ক্লার্কদের মতো খেলোয়াড়দের বিদায়ে বড় চাপে পড়ে যায় দলটি। একই অবস্থা শ্রীলঙ্কায়ও। কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনে, তিলকারতেœ দিলশানের মতো খেলোয়াড়দের হঠাৎ হারিয়ে বেশ কিছুদিন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে খুঁড়িয়েছে দলটি। এসব কথা খুব জানেন সাকিব। তাই অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের সঙ্গে তরুণ ক্রিকেটারদের সুযোগ দিয়ে তাদের অভিজ্ঞ করার তাগিদ দিচ্ছেন। নইলে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কার মতো বিপদে পড়তে হবে বলে মনে করেন তিন সংস্করণেই বিশ্বের সেরা অল রাউন্ডার।

টেস্টে বিশ্রাম নিয়ে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলতে সাকিব এখন দলের সাথে। দক্ষিণ আফ্রিকায়। ভারতের একটি সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশের তরুণদের পক্ষে ঢাল ধরেছেন সাকিব, ‘মনে রাখতে হবে আমাদের সিনিয়র খেলোয়াড়রা সারাজীবন খেলবে না। যখন আমরা চলে যাবো তখন একটা পালা বদলের সময় আসবে। এটা ক্রিকেটে খুব স্বাভাবিক। সব দলেই হয়। এমন ক্রান্তিকালে অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কায় তাদের সেরা খেলোয়াড়রা চলে গিয়েছে। তাই আমাদের লক্ষ্য ওই সময়টা যেন খুব মসৃণভাবেই যায়। এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে না থাকা সাকিব ফিটনেস ধরে রাখার জন্যই  বিশ্রাম নিয়েছেন। নিজেই তা স্পষ্ট করে বলেছেন আগে। তবে এই বিশ্রাম নিয়ে কম কথা শুনতে হয়নি তাকে। দলের সব তরুণ খেলোয়াড়কে এখনো টেস্ট খেলার মতো তৈরি মানেন না ক্রিকেটবোদ্ধারা। তবে সাকিব উড়িয়েই দিলেন তাদের কথা, ‘আমি এটা মানিনা। দেখেন আমার মনে হয় আমাদের তরুণদের বড় কিছু করার সামর্থ্য আছে।’

‘গত কয়েক বছরে আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটের বড় উন্নতি হওয়ার কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে। আমাদের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) আছে। অনেক তরুণই বিপিএল থেকে বেশ সুবিধা পাচ্ছে এবং নিজেদের উন্নতির প্রমাণ দিচ্ছে। আর এসব জিনিসই জাতীয় দলের তাঁবুতে কাজে দিচ্ছে। এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য ভালো দিক। আমি বিশ্বাস করি এ তরুণরা আমাদের সিনিয়রদের কাজটা অনেক সহজ করে দিচ্ছে।’ আগের কথার সাথে যোগ করে বলে চলছিলেন সাকিব।

বাংলাদেশের বর্তমান দল নিয়ে দারুণ খুশি সাকিব। নিজে টি-টুয়েন্টির অধিনায়ক, ওয়ানডেতে মাশরাফি বিন মুর্তজার ডেপুটি। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের সংমিশ্রণে টাইগার দলের দারুণ কিছু করার ক্ষমতা রয়েছে বলে বিশ্বাস সাকিবের।  তিনি। তাই আগামী পাঁচ বছর দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সময় বলে মনে করেন ৩০ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার, ‘আমার মনে আগামী পাঁচ বছর বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সময়। এখন আমাদের খুব ভালো অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের সংমিশ্রণ আছে। আমাদের দলে ভালো কিছু সিনিয়র খেলোয়াড় আছে। এবং দলে কিছু মেধাবী তরুণ খেলোয়াড়ও আছে যারা অতিরিক্ত পথ দৌড়ানোর ইচ্ছা রাখে। তাই আগামী কয়েক বছর আমরা যে কোন টুর্নামেন্ট ও সিরিজে ভালো পারফরম করবো।’

আপনার মতামত লিখুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ