শুক্রবার,২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং,১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৬:১৩
জগন্নাথপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন কাউখালীতে অগ্নিকাণ্ডে ঘর পুড়ে ছাই পাঁচবিবিতে দুই পরীক্ষার্থীর ভ্রাম্যমান আদালতে ২ বছর সাজা নড়াইলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে লাখো মোমবাতি প্রজ্জ্বলন বোয়ালখালীতে মদ ব্যবসায়ী সাইফু গ্রেপ্তার শরীয়তপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ শিবপুরে একুশে বইমেলার উদ্বোধন

ঢাবি-বুয়েট সংঘর্ষ : জড়িতদের শাস্তি দাবি

3 months ago , বিভাগ : শিক্ষা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে বুয়েট শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া তারা বুয়েট ক্যাম্পাসে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণেরও দাবি জানিয়েছে।

মঙ্গলবার এ দাবিতে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে। এর আগে গত সোমবার তারা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

এদিকে, সংঘর্ষের ঘটনা বুয়েট কর্তৃপক্ষ তিনটি তদন্ত কমিটি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। যদিও কোনো তদন্ত কমিটি এ ঘটনার প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি। তবে ঢাবি কর্তৃপক্ষ ঘটনার জড়িত থাকার দায়ে তিনজনকে চিঠি দিয়েছে।

গত অক্টোবরের ২৬ তারিখ রাতে মাদকসেবী এবং ২৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বুয়েটের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ হয়।  এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ২৯ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত ক্লাস বর্জন করে শিক্ষার্থীরা। এরপর ২ নভেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটি ছিল। দাবি পূরণে শিক্ষার্থীরা ওই দিন পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল। কিন্তু পূরণ না হওয়ায় ছুটি শেষেও তারা ক্লাসে ফেরেনি।

গত সোমবার দুপুরে বুয়েটের শতাধিক শিক্ষার্থী ক্যাফেটেরিয়ার সামনে জড়ো হয়। রেজিস্ট্রার ভবন ঘেরাও কর্মসূচি ছিল শিক্ষার্থীদের। এ সময় আন্দোলনকারীরা ক্যাম্পাসে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও জড়িতদের শাস্তির দাবি জানায়।

আন্দোলনকারীদের অন্যতম ও বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি শুভজ্যোতি টিকাদার এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আশা করি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের সব দাবি এ সপ্তাহের মধ্যেই মেনে নেবে। আমরা আগামী শনিবার থেকে ক্লাস করব।’

বুয়েটের তদন্ত কমিটি বিষয়ে ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টার পরিচালক অধ্যাপক সত্য প্রসাদ মজুমদার এনটিভি অনলাইনকে বলেন, শিক্ষার্থীদের আট দফা দাবির প্রায় সবই পূরণ হয়েছে। তবে ক্যাম্পাসে যান চলাচলের ব্যাপারে একটা কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা এ বিষয়টি নিয়ে কাজ করবে। দ্রুতই যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে আনা হবে।

অধ্যাপক সত্য প্রসাদ মজুমদার আরো বলেন, ঘটনার তিনটা তদন্ত কমিটি কাজ করছে। এখনো শেষ হয়নি। তদন্ত কমিটি ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রত্যক্ষদর্শী ও জড়িতদের ডেকে কথা বলছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছি। আমাদের শিক্ষার্থীরা আগামী সপ্তাহ থেকে ক্লাস করবে বলে জানিয়েছে।’

এ ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে গঠিত তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটির প্রধান ও জহুরুল হক হলের আবাসিক শিক্ষক মো. আবদুর রহিম এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমরা বিভিন্নভাবে আমাদের তদন্তের কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। কয়েকজনকে ডেকে আমরা কথাও বলেছি। বুয়েটের সহযোগিতায় আমরা ঘটনার পিছনে কারা আছে তাদের বের করার চেষ্টা করছি।’

এদিকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, তদন্তের কাজ চলছে। ইতিমধ্যে কয়েকজনকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। যারা যেমন অপরাধ করেছে তাদের তেমন শাস্তি হবে।সূএ: এনটিভিনিউজ

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ