মঙ্গলবার,২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং,৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৩:২২
দিনাজপুর মহিলা পরিষদ এর উদ্যোগে আলোচনা সভা ‘এএসওসিআইও-২০১৭ ডিজিটাল গভর্নমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীর সরকার সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে সর্বাত্মক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী পার্বতীপুরে প্রতিপক্ষের হাতে কৃষক নিহত॥ গ্রেফতার ৩ লালপুরে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে শপথ গ্রহণ সালমান শাহ হত্যা মামলার তদন্ত চলছে লালপুরে গোসাইজীর আশ্রমে নবান্ন উৎসব

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের বিরুদ্ধে প্রভাষকের জিডি

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  মুঠোফোনে হুমকি দেওয়ার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে রাজধানীর শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ফারসি ভাষা ও সাহিত্যের প্রভাষক মেহেদী হাসান।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে এনটিভি অনলাইনকে বিষয়টি জানিয়েছেন শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান।

মেহেদী হাসান নামের ওই প্রভাষক জানান, নিরাপত্তা চেয়ে গত ১০ নভেম্বর থানায় জিডি করেন তিনি। জিডি নম্বর ৬৪২।

জিডিটি হাতে এসেছে এনটিভি অনলাইনের। এতে মেহেদী হাসান উল্লেখ করেন, ‘গত ২৬ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নীল দল কর্তৃক আয়োজিত সাধারণ সভা চলাকালীন… ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিন কর্তৃক আক্রমণের স্বীকার হন। কিন্তু আক্রমণকারী শিক্ষক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিন মিডিয়ার কাছে অসত্য তথ্য প্রদান করায় আমি যেহেতু ওই ঘটনার একজন প্রত্যক্ষদর্শী ছিলাম, তাই ড. আ ক ম জামাল উদ্দিনের মিথ্যাচারের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হওয়ায় আমি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সঠিক তথ্য প্রকাশ করে যথাযথভাবে এর প্রতিবাদ করতে থাকি। এর প্রতিক্রিয়ায় গত ৬ নভেম্বর রাত ১০টা ২০ মিনিট থেকে ১০ টা ২৫ মিনিটের মধ্যে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিন আমাকে একটি মোবাইল ফোন, যার নম্বর ০১৭******৫৪ থেকে আমার মোবাইলে ফোন করে অত্যন্ত অপমানজনক ও ভীতি উদ্রেককারী ভাষায় হুমকি প্রদান করেন।’

“অধ্যাপক জামাল ফোনের শুরুতেই আমাকে ব্যক্তিগতভাবে চেনেন বলে উল্লেখ করেন এবং বিগত সিনেট নির্বাচনের নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় আমার কাছে ভোট চাইতে এলে আমার বিরুদ্ধে বিগত প্রশাসনের করা একটি মিথ্যা অভিযোগের ব্যাপারে আমি যে তাঁকে অবহিত করেছিলাম, সে ঘটনাটিকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে অত্যন্ত অপমানজনক ভাষায় মিথ্যাচার করে বলেন, আমি নাকি তাঁর হাত-পা ধরে আমার অভিযোগের কথা তাঁকে বলেছিলাম। আমি সাথে সাথেই এর প্রতিবাদ করে বলি, ‘আমি আপনার হাত-পা ধরে কথা বলিনি, মুখেই বলেছি আর তাতে কোনো কাজও হয়নি, বরং আমার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।’ এর পর তিনি আমার ওপর মিথ্যারোপ করে বলেন, তাঁর কাছে নাকি এই রিপোর্ট আছে যে, তাঁর বিরুদ্ধে পত্র-পত্রিকায় যেসব রিপোর্ট বের হচ্ছে তার সবই নাকি আমার পাঠানো। তিনি বলেন, আমার পাঠানো খবরের পূর্বে নাকি তাঁর পক্ষেই সব খবর প্রকাশ হয়েছে। আমিই নাকি তাঁর বিরুদ্ধে ইনকিলাব পত্রিকায় প্রথম সংবাদ প্রকাশ করি।’

এ বিষয়ে অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিনকে একাধিকবার কল করা হলেও তাঁর নম্বরটি ব্যস্ত দেখায়।

অভিযোগকারী শিক্ষক মেহেদী হাসান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘ওই শিক্ষক আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়েছে, যা আমার ফোনে রেকর্ডিং আছে। আমি সেটাই জিডিতে লিখেছি।’

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘ঢাবির এক শিক্ষক অন্য এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে জিডি করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখব।’

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘ভুক্তভোগী শিক্ষক রাষ্ট্রের কাছে একটা অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি রাষ্ট্র দেখবে। তিনি আমাদের (বিশ্ববিদ্যালয়) কাছে এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ করেননি।’

এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান জানান, তিনি একটি বৈঠকে আছেন।

সূএ: এনটিভিনিউজ

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ