শুক্রবার,২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং,৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১১:১৮

যমুনা ব্যাংকে উচ্চ বেতনে চাকরি সাতক্ষীরার অ্যাকুরিয়ামের রঙিন মাছ রপ্তানি হচ্ছে বিদেশেও ‘শুক্রবার থেকে ত্রাণ কার্যক্রমে অংশ নেবে সেনাবাহিনী’ ‘মহাসড়ক নেটওয়ার্কে জনসাধারণের যাতায়াতে স্বস্তি ফিরে এসেছে’ একাধিক পদে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে কাজের সুযোগ গাজীপুরে পিকআপের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত পবিত্র আশুরা ১ অক্টোবর

ঠাকুরগাঁওয়ে ভেজাল তেল বিক্রির অভিযোগে সুরমা ফিলিং স্টেশনে তেল বিক্রি বন্ধ

Thakkurgaon Pic-1আরমান হোসেন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ॥ ঠাকুরগাঁও শহরের বিসিক শিল্প নগরী সংলগ্ন এলাকায় ভেজাল তেল বিক্রির অভিযোগে সুরমা ফিলিং স্টেশন পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।
শনিবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: মাহবুবুল হক ঐ পাম্পে সকল প্রকার তেল বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দেন।
জানা গেছে, দীর্ঘদিন যাবৎ ঠাকুরগাঁও শহরের বিসিক শিল্প নগরী সংলগ্ন এলাকায় সুরমা ফিলিং স্টেশন পাম্পে ভেজাল পেট্রোল, অকটেন ও ডিজেল বিক্রি করে আসছে। এতে বহু মোটর সাইকেল ও ট্রাকের মালিকরা তিগ্রস্থ হয়েছে। শনিবার দুপুরে শহরের আশ্রমপাড়া এলাকার বাসিন্দা হালিম ওই পাম্প থেকে তাঁর মোটর সাইকেলে এক লিটার পেট্রোল নেন। তেল নেয়ার পর তিনি গাড়িটি নিয়ে শহরের উদ্দ্যেশে রওনা হন। কিছুদুর আসার পর তাঁর গাড়িটি বন্ধ হয়ে যায়। পরে তিনি গাড়িটি মোটর সাইকেল মেকারের দোকানে নিয়ে আসেন এবং সার্ভিসিং করার জন্য বলেন। সার্ভিসিং শেষে মেকার তাকে বলেন, গাড়ির পেট্রোলে ভেজাল ছিল। তাই গাড়িটি চলতে চলতে বন্ধ হয়ে যায়।
পরে হালিম সহ কয়েকজন ব্যক্তি ওই পাম্পে এসে ভেজাল তেলের কথা বলেন। এসময় পাম্পের ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম আরিফ ভেজাল তেলের কথা অস্বীকার করেন। এসময় উভয় পরে মাঝে বাক-বিতন্ডার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: মাহবুবুল হক ঘটনাস্থলে আসেন এবং পাম্পে ভেজাল তেল বিক্রি অভিযোগে সকল প্রকার তেল বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ম্যাজিস্ট্রেট মো: মাহবুবুল হক বলেন, ভেজাল তেল বিক্রির অভিযোগে সুরমা ফিলিং স্টেশনে সকল প্রকার তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও পাম্প থেকে তেলের নমুনা নেয়া হয়েছে। এই নমুনা বিএসটিআই-এ পাঠানো হবে এবং তেল পরীা করা হবে। তাই পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত সকল প্রকার তেল বিক্রি বন্ধ থাকবে।
উল্লেখ্য, ভেজাল তেল বিক্রির অভিযোগে এর আগেও অনেকবার স্থানীয় লোকজন ওই পাম্পটি বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পরবর্তীতে আবারও পাম্পটি চালু করে ভেজাল তেল বিক্রি শুরু করে কর্তৃপ।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ