বৃহস্পতিবার,২৪শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং,১১ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ২:৪৬
খুলনায় মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেপ্তার ৫৫ কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩ স্থিরতা নামাজের প্রাণ হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধে যা খাবেন না মোবাইল বৈধ কিনা জানা যাবে এসএমএসে অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেটে আর সিমকার্ড চালু হবে না ২০১৮ সালে বাংলাদেশের কিছু অর্জন

খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেওয়া হচ্ছে

3 months ago , বিভাগ : রাজনীতি,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) বেলা ১১টা ২৩ মিনিটে তাকে হাসপাতালের ৬১২ নম্বর কক্ষ থেকে বের করা হয়।

দুপুর ১২টায় খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছে কারা অধিদফতর।

কারাসূত্র জানিয়েছে, আজ তার আদালতে হাজিরা আছে। হাসপাতাল থেকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হবে। হাজিরা শেষ হলে তাকে কারাগারে নেয়া হতে পারে।

গত ৬ অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ হাসপাতালে নেয়া হয়। এর পর থেকে কেবিন ব্লকের ৬১২ নম্বর কক্ষে ছিলেন তিনি।

সূত্র জানিয়েছে, বেগম খালেদা জিয়াকে নাইকো দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজির করার জন্য ইতোমধ্যেই বিএসএমএমইউ হাসপাতাল প্রাঙ্গণ ও নাজিমউদ্দিন রোড এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে কেবিন ব্লকে প্রবেশের ফটক।

খালেদা জিয়াকে আজ কারাগারে ফিরিয়ে নেয়া হবে কিনা-এমন প্রশ্নের সরাসরি কোনো জবাব দিতে রাজি হননি বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন।

তিনি বলেন, তাকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা কিংবা চিকিৎসা শেষে ফিরিয়ে নেয়া বিদ্যমান আইনের ওপর নির্ভর করছে।

তার শারীরিক অবস্থা কেন্দ্রীয় কারাগারে ফিরিয়ে নেয়ার মতো পর্যায়ে রয়েছে কিনা এবং এ ব্যাপারে মেডিকেল বোর্ড তাদের মতামত দিয়েছে কিনা-এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, তারাও কারাবিধি অনুসারে কারা কর্তৃপক্ষ জানতে চাইলে আইন মেনে তাদের মতামত প্রদান করবেন।

গত ৪ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি ও চিকিৎসাসেবা শুরু করতে পাঁচ সদস্যের একটি বোর্ড গঠন করার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। পরে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) বেলা ১১টা ২৩ মিনিটে তাকে হাসপাতালের ৬১২ নম্বর কক্ষ থেকে বের করা হয়।

দুপুর ১২টায় খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছে কারা অধিদফতর।

কারাসূত্র জানিয়েছে, আজ তার আদালতে হাজিরা আছে। হাসপাতাল থেকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হবে। হাজিরা শেষ হলে তাকে কারাগারে নেয়া হতে পারে।

গত ৬ অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ হাসপাতালে নেয়া হয়। এর পর থেকে কেবিন ব্লকের ৬১২ নম্বর কক্ষে ছিলেন তিনি।

সূত্র জানিয়েছে, বেগম খালেদা জিয়াকে নাইকো দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজির করার জন্য ইতোমধ্যেই বিএসএমএমইউ হাসপাতাল প্রাঙ্গণ ও নাজিমউদ্দিন রোড এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে কেবিন ব্লকে প্রবেশের ফটক।

খালেদা জিয়াকে আজ কারাগারে ফিরিয়ে নেয়া হবে কিনা-এমন প্রশ্নের সরাসরি কোনো জবাব দিতে রাজি হননি বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন।

তিনি বলেন, তাকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা কিংবা চিকিৎসা শেষে ফিরিয়ে নেয়া বিদ্যমান আইনের ওপর নির্ভর করছে।

তার শারীরিক অবস্থা কেন্দ্রীয় কারাগারে ফিরিয়ে নেয়ার মতো পর্যায়ে রয়েছে কিনা এবং এ ব্যাপারে মেডিকেল বোর্ড তাদের মতামত দিয়েছে কিনা-এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, তারাও কারাবিধি অনুসারে কারা কর্তৃপক্ষ জানতে চাইলে আইন মেনে তাদের মতামত প্রদান করবেন।

গত ৪ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি ও চিকিৎসাসেবা শুরু করতে পাঁচ সদস্যের একটি বোর্ড গঠন করার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। পরে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এরপর খালেদা জিয়াকে নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়। গত ৩০ অক্টোবর এই মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা বাড়িয়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন হাইকোর্ট।

য় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এরপর খালেদা জিয়াকে নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়। গত ৩০ অক্টোবর এই মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা বাড়িয়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন হাইকোর্ট।সূত্র: পূর্বপশ্চিম

আপনার মতামত লিখুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ