সোমবার,১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং,২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৫:২৬
গোবিন্দগঞ্জে ভোটে লড়বে ৮জন ফারুক আলম ইস্যুতে ঐক্য সাঘাটা ও ফুলছড়ি বিএনপি রংপুর বিভাগের শেষ্ঠ এ এস আই সন্মাননা পেলেন গোবিন্দগঞ্জ থানার এ,এস আই শওকত গাইবান্ধার ৩ টি আসনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেনি মহাজোটের শরীক দল জাতীয় পার্টি ৩ দিন ধরে বন্ধ রয়েছে রংপুর চিনিকলের আখ মাড়াই কার্যক্রম গোবিন্দগঞ্জে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার লালমনিরহাটে ১৬ সংসদ প্রার্থী এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করবেন

কুয়াকাটা সৈকতে অর্ধগলিত ‘বেলিন’ তিমি!

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে বেলিন জাতের একটি মৃত তিমি জোয়ারের পানির সঙ্গে ভেসে এসে আটকে পড়েছে। শনিবার সকালে কুয়াকাটা জিরো পয়েন্ট থেকে চার কিলোমিটার পূর্ব দিকে সংরক্ষিত জাতীয় উদ্যান সংলগ্ন সৈকতে আটকে পড়ে। এটি প্রায় ৪৫ ফুট লম্বা ও ২০ ফুট প্রশস্ত।

কুয়াকাটা সৈকতে শনিবার ভোরে জেলে ও আগত পর্যটকদের নজরে আসে। মুহূর্তে মধ্যে খবরটি ছড়িয়ে যায়। এ খবর পেয়ে পর্যটক ও স্থানীয় লোকজন মাছটিকে একনজর দেখার জন্য ভিড় করেন সেখানে। স্থানীয় জেলেদের ধারণা গভীর সমুদ্রে অন্তত ১৫ দিন আগে এ তিমি মাছটি মারা গেছে। বিশালাকৃতির তিমি মাছটি উদ্ধার করে সংরক্ষণের মাধ্যমে পর্যটক ও দর্শনার্থীদের জন্য উম্মুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন পর্যটনমুখী ব্যবসায়ীরা।

সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণকারী গবেষণা প্রতিষ্ঠান ওয়াইল্ডলাইফ কনজার্ভেশন সোসাইটির মেরিন এডুকেশন অ্যান্ড ট্রেনিং কোর্ডিনেটর ফারহানা আখতার কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসা তিমি মাছ প্রসঙ্গে বলেন, এটি ব্রিডিস তিমি বা বেলিন তিমি। এদের দাঁত থাকে না, এর বদলে ছাঁকনির মতো অংশ থাকে।

যার মাধ্যমে এরা পানি থেকে ছোট ছোট মাছ ও চিংড়ি জাতীয় প্রাণী খেয়ে বাঁচে। এরা সাধারণত ৪০ থেকে ৫০ ফুটের মতো লম্বা হয়ে থাকে। কালো থেকে ধূসর বর্ণের এই তিমির পেটের দিকটা অনেকটা হালকা ক্রিম রংয়ের। এদের মাথাটি খাটো ও চওড়া এবং মাথায় তিনটি সমান্তরাল খাঁজ থাকে, যা দিয়ে সহজেই এদের আলাদা করা যায়। এরা সাধারণত ১২ বছর বয়স থেকে বাচ্চা জন্ম দিতে পারে।

বাংলাদেশের জল সীমানায় সোয়াচ-অব-নো গ্রাউন্ড এলাকায় এদেরকে সচরাচর দেখা যায়।

বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তানভীর রহমান বলেন, আমরা একটি মৃত তিমি ভেসে আসার খবর পেয়েছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে এটিকে শিক্ষার্থী এবং পর্যটকদের জন্য কোনোভাবে সংরক্ষণ করা যায় কি-না সেটি ভেবে দেখা হচ্ছে।সূত্র: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

বরিশাল,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ