মঙ্গলবার,২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং,৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:৪০
ফোরজির জন্য গ্যালাক্সি জে২ কে নতুনভাবে সাজিয়েছে স্যামসাং পদ্মাবতের ৫২৫ কোটির ব্যবসা, সঞ্জয় যা বললেন ‘ব্ল্যাকমেল’-এর টিজার ও মুখ ঢাকার হিড়িক ‘দিব্যি বেঁচে আছি,’ বললেন ‘মৃত’ সিলভেস্টার স্ট্যালন কোয়ার্টার ফাইনালে উইগান, ম্যানসিটির বিদায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আজ মুখোমুখি চেলসি ও বার্সেলোনা আফগানিস্তানের কাছে পাত্তাই পেল না জিম্বাবুয়ে

কাজিরাঙা জঙ্গলের অর্ধেকই পানির নিচে, বিপন্ন পশুরা

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: উত্তর-পূর্ব ভারতের আসাম রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও প্রাণহানির ঘটনা বাড়ছে। মানুষের পাশাপাশি বন্য পশুরাও মারা পড়ছে। ৪৩০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের বিখ্যাত কাজিরাঙা জাতীয় উদ্যানের ৫২ শতাংশ এলাকা এখনো পানির নিচে।

সরকারি হিসাবে, এখন পর্যন্ত আসামে বন্যাজনিত কারণে ৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। দুই দিন ধরে ব্রহ্মপুত্রসহ প্রধান প্রধান নদীগুলোর পানি কমতে শুরু করলেও পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। রাজ্যের ৩৩টি জেলার মধ্যে ২৪টি জেলাই বন্যাকবলিত।

কাজিরাঙা জঙ্গলের অন্তত ৭০টি জন্তু বন্যার শিকার হয়েছে। বন দপ্তরের কর্মকর্তাদের তথ্য অনুযায়ী, তিনটি গন্ডারশাবক, একটি চিতার বাচ্চা, একটি বুনো মোষসহ বেশ কিছুসংখ্যক হরিণ বন্যায় ভেসে গেছে।

বন্যার কারণে পরিস্থিতি এলোমেলো হয়ে পড়ায় কাজিরাঙায় চোরা শিকারিরা সক্রিয় হয়ে পড়েছে। চোরা শিকার রুখতে এ জাতীয় উদ্যানে ৯৩টি নজরদারি ক্যাম্প খোলা হয়েছিল। বন্যার কারণে সেসব ক্যাম্পের অধিকাংশই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, রাজ্যের ২৪ জেলার ১ হাজার ৭৯৫টি গ্রামের প্রায় ১২ লাখ মানুষ বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে। ৬৬ হাজার ৫১৬ হেক্টর কৃষিজমি এখনো পানির নিচে। ১২৯টি ত্রাণশিবিরে ২৫ হাজারেরও বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ