বৃহস্পতিবার-২১শে মার্চ, ২০১৯ ইং-৭ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১১:৩৩
পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন বন্ধ ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি সফল ২৬শে মার্চ সারা দেশে একযোগে জাতীয় সংগীত তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা থাকছে না ঢাকায় নিয়োগ দেবে আম্বার গ্রুপ চাকরির সুযোগ দেবে নোভারটিস বাংলাদেশ নিয়োগ দেবে ইন্টারকন্টিনেন্টাল, ঢাকা

কাঁচা মরিচ না-কি শুকনো মরিচ- কোনটি ভালো?

মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: মরিচ আমাদের খাবারে ব্যবহারযোগ্য মশলার মধ্যে অন্যতম। এটি খাবারকে কেবল আরো সুস্বাদু করে তোলে তা-ই নয় বরং প্রদান করে অনেক স্বাস্থ্য সুবিধা। অপরিহার্য খনিজ এবং ভিটামিন সমৃদ্ধ এই উপকরণটি আমাদের প্রতিদিনের খাবারের সঙ্গে থাকবেই।

আমাদের রান্নাঘরে সাধারণত দু‌ই রকমের মরিচ থাকে। কাঁচা মরিচ এবং লাল শুকনো মরিচ (বেশিরভাগই গুঁড়ো আকারে)। সম্প্রতি একটি বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে-দুটির ভেতর কোনটি ভালো। যদিও একটি সাধারণ ধারণা মানুষের মধ্যে বিদ্যমান। তা হলো যা কিছু সবুজ তা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। গবেষণায়ও প্রমাণিত হয়েছে যে কাঁচা মরিচ নানা উপায়ে স্বাস্থ্য এবং সামগ্রিক সুস্থতায় সহায়তা করে।

কাঁচা মরিচ বনাম শুকনো মরিচ :
শুকনো মরিচ যা সময়ের ব্যবধানে শুকিয়ে লাল হয়ে যায়। এতে পানির বেশিরভাগ উপাদান থাকে না। এ ছাড়া এতে পুষ্টিও থাকে কম।

শুকনো মরিচ সাধারণত গুঁড়া অবস্থায় ব্যবহার করা হয়। চূড়ান্ত পণ্য হিসেবে বাজারে আসার সময় এতে সাধারণত ভেজাল মেশানো হয়। এ ছাড়া কেনা শুকনো মরিচের গুঁড়ায় কৃত্রিম রং ব্যবহারের সম্ভাবনা থাকে।

কাঁচা মরিচে পানির উপাদান থাকে। এতে কোনো ক্যালোরি নেই। এটি তাদের জন্য উপযুক্ত যারা নিজেদের শরীরের ওজন নিয়ে ভাবেন এবং মশলা ছাড়া একদিনও চলে না।

যদি আপনার হজমে দীর্ঘস্থায়ী অসুবিধা থাকে তবে শুকনো মরিচ অভ্যন্তরীণ প্রদাহ ঘটাতে পারে যা পেপটিক আলসার বা এমনকি পেটের ক্যান্সারও হতে পারে।

কাঁচা মরিচের উপকারিতা:
হজমে সাহায্য – কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে ডায়েটারি ফাইবার রয়েছে যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। এটি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ যা মলাশয় পরিষ্কার করে এবং অন্ত্রের গতিকে সহজ করে তোলে। এ ছাড়া কাঁচা মরিচ লালা উৎপাদন করে যা পাচন প্রক্রিয়াকে সহজ করে।

রক্তের সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণ করে – কাঁচা মরিচ ডায়াবেটিসের জন্য চমৎকার প্রতিকার। এটি ইনসুলিন স্তর নিয়ন্ত্রণ করে রক্তে ​​শর্করার ভারসাম্য রক্ষা করে।

ওজন হ্রাস করে – কাঁচা মরিচে আদৌ কোনো ক্যালোরি নেই। এটি ক্যালোরি ধ্বংস করে এবং বিপাক গতিতে সাহায্য করে। ফলে ওজন কমে।

হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য বজায় রাখে – কাঁচা মরিচে থাকা প্রধান উপাদানগুলোর মধ্যে বিটা-ক্যারোটিন অন্যতম। এটি হৃদযন্ত্রের কার্যকারিতা বজায় রাখে। এ ছাড়া উপাদানটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। কাঁচা মরিচ উচ্চ কোলেস্টেরলের মাত্রা পরীক্ষা করে এবং রক্তে ঘনীভূত দ্রব্য গড়ে ওঠা প্রতিরোধ করে।

ক্যান্সারের বিরুদ্ধে সুরক্ষা – কাঁচা মরিচে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট নামের প্রাকৃতিক উপাদান ফুসফুস, মুখ, মলাশয় এবং গলা ক্যান্সারের হাত থেকে রক্ষা করে।

শুকনো মরিচের উপকারিতা:
রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে – লাল শুকনো মরিচের গুঁড়ায় রয়েছে পটাসিয়াম যা রক্তনালীকে স্বাভাবিক রাখে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

ভিটামিন সি-এর সমৃদ্ধ উৎস – শুকনো মরিচে থাকা ভিটামিন সি মূলত শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে উন্নত করে এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে।

চর্বি দূর করে – শুকনো মরিচের গুঁড়ায় রয়েছে ক্যাপসেসিন নামের একটি যৌগ যা শরীরের বিপাকীয় কর্মকাণ্ড বৃদ্ধি করে এবং চর্বি দূর হতে সাহায্য করে। এ ছাড়া এটি এমন উপযোগী হরমোন তৈরি করে যার ফলে যৌন জীবন উন্নত হয়।

শুকনো মরিচের গুরুত্ব অস্বীকার করা যাবে না। তবে, অনেক গবেষণায় কাঁচা মরিচ একটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প হিসেবে প্রমাণিত।সূত্র: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ