বুধবার,২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং,৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:৩৬

‘বন্যার পরে কৃষকদের সহায়তায় সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকবে’ শান্তিতে মারা গেছেন আব্বা : সম্রাট শক্তির উৎস আজ দাফন করে এলাম : শাকিব আফ্রিদির ৪৩ বলে শতক নেইমারের বিরুদ্ধে বার্সেলোনার মামলা মার্কিন হুঁশিয়ারির পর পাকিস্তানের পাশে চীন ভারতের ফের ট্রেন লাইনচ্যুত : আহত ৫০

এবার যেন একটু আগেভাগেই জমে উঠেছে ঈদের বাজার

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: এবার যেন একটু আগেভাগেই গোপালগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদের বাজার। নানা ডিজাইনের পোষাক থাকলেও ভারতীয় এবং চাইনিজ পোশাকই দখল করে নিয়েছে বাজার । এদিকে, জামালপুরের নারীদের হাতে তৈরী নকশী কাথা, শাড়ী, সালোয়ার কামিজ,পাঞ্জাবী,ফতুয়াসহ নানা নকশী পণ্যের সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে দেশে- বিদেশে । অন্যদিকে,কুষ্টিয়ায় ঈদকে সামনে রেখে তৈরি পোশাক’র চাহিদা বাড়ায় ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জি বাড়ির কারিগররা।

ঈদের বাকী আরো বেশ কয়েকদিন। কিন্তু দিন যতই এগিয়ে আসছে ততই জমে উঠছে গোপালগঞ্জের ঈদ বাজার। ঈদে নতুন পোশাক দিতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বিপনী বিতানগুলোতে ছুটছে নানা শ্রেনী পেশার মানুষ। এদিকে, জামালপুর জেলায় সবমিলিয়ে প্রায় ৫০ হাজারের বেশী নারী কর্মী জড়িয়ে আছে নকশী সূচি শিল্পের সাথে। এই ঈদে সুই-সুতায় নানা ডিজাইন ,রঙ আর বর্ণে তারা ফুটিয়ে তুলে নকশী কাথা,বেডকভার, শাড়ি,পাঞ্জাবী, সালোয়ার-কামিজসহ নানা সূচি পণ্য।

কুষ্টিয়ায়ও ঈদকে সামনে রেখে তৈরি পোশাকের চাহিদা বাড়ায় ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জি বাড়ীর কারীগররা । অব্যাহত লোডশেডিং আর মজুরী কম হওয়ায় আশানুরূপ পারিশ্রমিক অর্জন করতে পারছেন না তারা।

থান কাপড়ের থ্রী পিচের পরিবর্তে ভারতীয় তৈরি থ্রী পিচের চাহিদাই বেশি। নতুন কালেকশনের দিকে ঝুঁকছে বেশি জানালেন তৈরি পোশাকের দোকানীরা।

আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ