বুধবার,১৮ই জুলাই, ২০১৮ ইং,৩রা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৪:৫৬
এইচএসসির ফল জানার সহজ সমাধান ‘যেখানে পরিত্যক্ত জায়গা সেখানেই লাগাতে হবে গাছ’ দিনাজপুরে ৬ষ্ঠ জেলা কাব ক্যাম্পূরী-২০১৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষা বোর্ডের সচিব স্কাউট শিক্ষাই হচ্ছে পরিচ্ছন্ন জীবন হাবিপ্রবিতে জাতীয় বৃরোপন কর্মসূচি-২০১৮ পালিত ৩০ লক্ষ শহীদের স্বরনে দিনাজপুরে ৭৮ হাজার গাছের চারা বিতরণ ও রোপন কর্মসূচী সম্পন্ন কাল এইচএসসির ফল পার্বতীপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন

উদ্ধার হওয়া থাই কিশোরদের ভিডিও প্রকাশ

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: থাইল্যান্ডের পাহাড়ি গুহা থেকে উদ্ধার হওয়া ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচের প্রথম ছবি ও ভিডিও চিত্র প্রকাশিত হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা গেছে বেশ কয়েকজন কিশোর হাসপাতালের বিছানায় মুখে মাস্ক পড়ে বসে আছে । এদের মধ্যে একজন ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে বিজয়সূচক ‘ভি’ চিহ্ন প্রদর্শন করেছে। খবর বিবিসির।
এসময় হাসপাতালের বিশেষ সংরক্ষিত কক্ষের বাইরে জানালার কাঁচ দিয়ে উদ্বিগ্ন স্বজনদেরকে তাদের আদরের সন্তানদের দিকে তাকিয়ে থাকতে দেখা গেছে।
সাম্প্রতিক বিপজ্জনক উদ্ধার অভিযানে অংশগ্রহণকারী ডুবুরিরা বলেছেন, পানির নিচের প্রচণ্ড অন্ধকার ও সরু পথ দিয়ে বের করে আনার সময় কিশোররা যাতে ভয় না পায় সেজন্য প্রতিটি অভিযানের শুরুতে শিশুদেরকে গভীরভাবে অজ্ঞান করে নেয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে থাই নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা চাইয়ানান্ত পিরানাংরং বলেছেন, অজ্ঞানের পর কিশোরদের কেউ কেউ পুরোপুরি ঘুমিয়ে পড়েছিল আবার কেউ কেউ তাদের আঙ্গুল নাড়াচ্ছিল। কিন্তু তাদের শ্বাস-প্রশ্বাস ঠিকমতো চলছিল।
রোববার থেকে শুরু হওয়া তিনদিনের শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানে গত মঙ্গলবার ২৫ বছর বয়সী কোচকে উদ্ধারের মাধ্যমে আটকে পড়া কিশোর ফুটবলারদের শেষ দলকে নিরাপদে বের করে আনা হয়।
গুহা থেকে বের করে হেলিকপ্টারে উঠানো পর্যন্ত উদ্ধার হওয়া কিশোরদের ছাতা দিয়ে ঢেকে রাখা হয় যাতে তাদেরকে দেখা না যায়। গুহা থেকে বের করার পর হাসপাতালে পৌঁছে দেয়ার পুরো সময় শিশুদেরকে সাংবাদিকদের ক্যামেরার সামনে আনা হয়নি।

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা অনুমোদনরাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভা কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের আইনপ্রণেতারা। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত ভোটে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ ও ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচার দলের সঙ্গে রাশিয়ার সংযোগ নিয়ে চলমান তদন্তের মধ্যেই এ নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবে অনুমোদন দিলেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। একই দিনে সন্ত্রাসে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগে ইরান ও দেশটির বিপ্লবী ইসলামী গার্ড কোর (আইআরজিসি) এবং পরমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাবে অনুমোদন দেন তাঁরা। এর আগে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান পার্টি নিয়ন্ত্রিত কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে প্রায় সর্বসম্মতিক্রমে এ ধরনের একটি খসড়া প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে নিম্নকক্ষে উত্তর কোরিয়ার বিষয়টি যুক্ত করে খসড়াটির অনুমোদন দেওয়া হয়। নতুন নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবে অনুমোদনের বিষয়ে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের পররাষ্ট্রবিষয়ক কমিটির রিপাবলিকান পার্টির চেয়ারম্যান এড রয়েস বলেন, তিনটি দেশ যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোকে হুমকির মুখে ফেলেছে এবং প্রতিবেশীদের অস্থিতিশীল করে তুলেছে। নতুন নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাবটি কত দ্রুত হোয়াইট হাউসে পৌঁছে ট্রাম্পের অনুমোদন বা ভেটো পাবে, তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। কারণ এর আগে প্রস্তাবটি অবশ্যই সিনেটে পাস হতে হবে। নতুন এই নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবের বিষয়ে রুশ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষের প্রভাবশালী সদস্য কনস্টান্টিন কসাচিওভ বুধবার বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপের জবাবে মস্কোর উচিত ‘বেদনাদায়ক’ পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়া।