রবিবার,১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং,২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১০:১০
নেতা নয়, সেবক হতে চাই: শেখ তন্ময় ভোটকক্ষে সাংবাদিকরা যা করতে পারবেন, যা পারবেন না ফখর উদ্দিন মোহাম্মদ স্বপনের শেরে-বাংলা পদক লাভ ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কলমাকান্দা ইউএনও’র অনন্য নজির জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত, থাকবে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় ক্রিকেটে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার আশাবাদ প্রধানমন্ত্রীর

আগামী মাসেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা সম্ভব হবে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: আগামী মাসের মধ্যেই বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্তি বাড়ানোর জন্য কাজ চলছে। ইতিমধ্যে আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। তবে কতটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে করা হবে তা এ মুহূর্তে বলা না গেলেও দ্রুত সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

গতকাল রবিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এতথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অধিবেশনে এ সংক্রান্ত সম্পুরক প্রশ্নটি উত্থাপন করেন সরকারি দলের সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন।

সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য বেগম লুৎফা তাহেরের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, প্রশ্নপত্র প্রণয়নে গোপনীয়তা নিশ্চিত করতে সকল বোর্ডের সমন্বিত উদ্যোগে প্রশ্ন ব্যাংক তৈরি করার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। বর্তমান বোর্ডসমূহের প্রশ্ন ব্যাংক তৈরির নিমিত্ত সফলওয়ার তৈরির কাজ চলছে। সফটওয়ারটি তৈরি হলে বাংলাদেশ পরীক্ষা মূল্যায়ন ইউনিট কর্তৃক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকগণ অনলাইনে তৈরিকৃত প্রশ্নপত্র প্রশ্নব্যাংকে প্রেরণ করবেন। প্রেরিত প্রশ্নসমূহ হতে সুপার মডারেটর কর্তৃক মডারেশন হয়ে পরীক্ষার জন্য চূড়ান্ত প্রশ্নপত্র তৈরি হবে। এর ফলে পাবলিক পরীক্ষাসমূহের প্রশ্নপত্রের গোপনীয়তা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার। উন্নয়নকে গতিশীল ও স্থায়ী করতে এসডিজিতে শিক্ষাকে মূল ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। দেশের সকলের জন্য যুযোপযোগী শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশ্বমান অর্জনে যে অগ্রগতি সাধিত হয়েছে তার ধারাবাহিকতায় ভবিষ্যতেও শিক্ষা ক্ষেত্রে গুণগত পরিবর্তন অব্যাহত থাকবে এবং জ্ঞানভিত্তিক দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টিতে এ প্রয়াস সহায়ক হবে বলে আশা করি। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস শিক্ষাক্ষেত্রে গৃহীত কার্যক্রমসমূহ রূপকল্প-২০২১ এর স্বপ্নকে বাস্তবে রূপান্তর করবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শিক্ষক-অভিভাবক-সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তি, কমিউনিটি নেতা-ইমাম-গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হচ্ছে। কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষকতার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এ ছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে এরূপ কার্যক্রমের বিষয়ে মনিটরিং জোরদার করা হয়েছে।

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, কওমী মাদরাসা শিক্ষাকে যুগোপযোগী করে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে মূল ধারায় সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। এ লক্ষ্যে ’আল হাইয়াতুল উলুম লিলজামি আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’ এর অধীন কওমী মাদ্রাসার হাওরায়ে হাদিস (তাকমিল) এর সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রী (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) এর সমমান প্রদানের উদ্দেশে খসড়া আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। আইনটি বর্তমানে সংসদের শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ