বুধবার-২৪শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং-১১ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ২:১১
চন্দনারানীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পূঁজা উৎযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ চন্দ্র সাহা গাইবান্ধায় মন্দির ভিত্তিক প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ গাইবান্ধায় অটোবাইকের ধাক্কায় আহত যুবকের মৃত্যু কামারপাড়া ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামে বসতবাড়ি ও ফসলি জমি ঘেঁষে তিন ফসলি জমিতে ইটভাটা স্থাপন গ্রামীণ জনপদে সুইমিং পুল, রিসোর্ট- বাঘ, হরিন, হাতি, পাখির স্ট্যাচুসহ বিভিন্ন রাইড ও খেলনা বিনোদন প্রেমীদের জন্য ফারিহা গার্ডেন মনির হোসেন.বরিশাল ॥ দক্ষিণাঞ্চলে সড়ক পথে প্রথম সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হন চার মুক্তিযোদ্ধা বরিশালে বোরো ধানের বাম্পার ফলনেও হাসি নেই কৃষকের

অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে শিরোপা জয়ের আরো কাছে বার্সা

2 weeks ago , বিভাগ : খেলাধুলা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদকে ২-০ গোলে হারিয়ে স্পানিশ লিগে শিরোপা জয়ের আরো কাছাকাছি পৌঁছে গেল বার্সেলোনা। একই সঙ্গে এই জয়ে স্প্যানিশ লিগে ইকার ক্যাসিয়াসকে টপকে সর্বোচ্চ ৩৩৫টি ম্যাচে জয়ের নতুন রেকর্ডও গড়লেন লিওনেল মেসি।

গতকাল শনিবার ন্যু ক্যাম্পে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচের শুরু থেকে দাপট দেখায় বার্সেলোনা। ১৫ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো তারা। কিন্তু জর্দি আলবার শট পোস্টে বাধা পেয়ে ফিরে আসলে গোল বঞ্চিত হতে হয় এরনেস্তো ভালভেরদের শিষ্যদের।

২০ মিনিটে অ্যাতলেটিকোর গ্রিজম্যানের শট ফিরিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক টার স্টেগান। এর ঠিক ৭ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি ডি-বক্সের বাহির থেকে একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে এগিয়ে যান বার্সেলোনার কুতিনহো। গোলরক্ষককে একা পেয়ে জোড়ালো শট করেন। কিন্তু সেই শট ফিরিয়ে দিয়ে নিশ্চিত গোল থেকে অ্যাতলোটিকোকে রক্ষা করেন ওব্ল্যাক।

এদিকে ২৮ মিনিটে রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে বিপদে পড়ে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন দিয়েগো কস্তা। এর প্রতিবাদ করতে গেলে হলুদ কার্ড দেখেন জিমেনেস ও গোদিন।

প্রথমার্ধে গোলশূন্য সমতা নিয়েই বিরতিতে যেতে হয় উভয় দলকেই।

বিরতির পর গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে বার্সা। তবে তাতে বাধা হয়ে দাঁড়ান অ্যাতলেটিকো গোলরক্ষক ওব্ল্যাক। ৫৬ মিনিটে মেসির শট ফিরিয়ে দেন তিনি। ৬২ মিনিটে সুয়ারেজ নিশ্চিত গোল ফিরিয়ে দেন ওব্ল্যাক। ৬৪ ও ৬৯ মিনিটে আরও দুইটি শট ফিরিয়ে দেন এই গোলরক্ষক।

তবে ৮৫ মিনেটে আর আটকে রাখতে পারেনি তিনি। পেনাল্টি ডি-বক্সের বাইরের বামপ্রান্ত থেকে লুইস সুয়ারেজের ডান পায়ের এক বাকানো শটে বল প্রতিপক্ষের জালের ঠিকানা খুঁজে পায়।

এর এক মিনিট পরই অ্যাতলেটিকোর হারের কফিনের শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন বার্সা অধিনায়ক। ৮৬ মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে মেসিকে আটকাতে গিয়ে পড়ে যান ডিফেন্ডার হিমেনেস। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তিন ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে দারুণ ফিনিশিংয়ে দলকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন তিনি। স্প্যানিশ লিগে লিগে এটি তার ৩৩তম গোল।

বাকিটা সময় চেষ্টা করেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। এর ফলে ২-০ গোলে জয়ে লিগ শিরোপা পেয়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল ভালভার্দের শিষ্যরা।

আপনার মতামত লিখুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ