বৃহস্পতিবার,২০শে জুলাই, ২০১৭ ইং,৫ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৮:৩৫

২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে শিশু শ্রম মুক্ত করা হবে ————-শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ৩৫তম বিসিএসে ক্যাডার পদে উত্তীর্ণ ১৫ প্রার্থীকে তলব জিমেইলে ভুলে পাঠানো বার্তা বাতিল করতে চান? সাইবার হয়রানি বেশি হয় ইনস্টাগ্রামে ‘নিউজ ফিড’ যুক্ত করছে গুগল কলাপাড়ায় ইয়াবাসহ দুই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।। আসাদ-বিরোধী গেরিলাদের প্রতি সমর্থন বন্ধ করছেন ট্রাম্প

অপু বিশ্বাস কী স্মৃতির নায়িকা!

imagesমুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: ঈদের ছবি মানেই অপু বিশ্বাস- এক যুগের ক্যারিয়ারে এমনটিই ঘটেছে। এক ঈদে তার তিনটি ছবি মুক্তি পাওয়ার রেকর্ডও আছে। আসছে ঈদ জনপ্রিয় এই নায়িকা ও ভক্তদের জন্য সুখকর নয়। কোনো ছবিতে নেই তিনি। তবে কী ‘স্মৃতির নায়িকা’ হয়ে গেলেন অপু বিশ্বাস?

ব্যবসাসফল অনেক চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন অপু। নাম্বার ওয়ান নায়ক শাকিব খানের সর্বাধিক ছবির নায়িকা হওয়ার সুবাদে বিগত ঈদগুলোতে রূপালি পর্দাজুড়ে ছিলো অপুর একক দাপট।এই কয়েক বছরে আর কোনো নায়িকাকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবার সময় বা সুযোগ পাননি তিনি!

গত ঈদুল ফিতরেও তার পর্দা উপস্থিতি (সম্রাট) অন্তত এটা মনে করিয়ে দিয়েছিলো যে, অপু হারিয়ে যাবেন না। কিন্তু এরও কিছুদিন আগে হঠাৎ করে অন্তরালে চলে যাওয়া অপুর হদিস আর পাওয়া গেলো না। অপুকে ঘিরে এখন দীর্ঘশ্বাসই জোরালো হচ্ছে। তার ‘সাময়িক অভিমান’পর্ব কতোদিন চলবে?

অপু কোথায়- এমন প্রশ্নের সদুত্তর নেই চলচ্চিত্র অঙ্গনের কারোর কাছে। তার পরিবারের সদস্য ও সহকর্মীরাও এ ব্যাপারে মুখ বন্ধ রেখেছেন। অনেকের জিজ্ঞাসা, বগুড়ার বিশ্বাস বাড়ির মেয়েটি তবে সিনেমা দুনিয়া থেকে চিরতরে হারিয়ে গেলো? কী এমন অভিমান তার? শাকিব কার সঙ্গে জুটি বাঁধবেন এটা অনেকাংশেই তার ওপর নির্ভর করে। দীর্ঘ বছর তিনি অপুকে প্রাধান্য দিয়েছেন। একটা সময়ে এসে শাকিব অন্য নায়িকাদের সঙ্গেও জুটি গড়ে তোলেন। এ অবস্থায় অপুর ‘বসে থাকা’ই কাজ হয়ে ওঠে। মাঝখানে ‘মুটিয়ে’ যাওয়ায় বিরতিও নিয়েছিলেন। ফিরেছিলেন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করবেন বলেই। এর মধ্যে কালেভদ্রে শাকিবের সঙ্গে তার ছবিও হচ্ছিলো। এ অবস্থায় ‘এভাবে আর হয় না’ ভাবার অবকাশ হয়তো তৈরি হয়েছিলো অপুর মনে। তা-ই শেষমেষ ‘অভিমান’কে পুঁজি করে আঁড়ালে চলে গেলেন তিনি? কে জানে!

অপুর অন্তর্ধানের পরপরই একজন নায়িকার আগমন, তিনি বুবলি শবনম। ব্যাপারটা কাকতালীয় হলেও কোনো একটি যোগসূত্র নিশ্চয়ই আছে। চমকপ্রদ বিষয় হলো- বুবলি যেন এসেই শাকিবকে জয় করে নিলেন। অপু যেটা সম্ভব করেছেন ধীরে ধীরে, নানা পরীক্ষা ও প্রমাণ দিয়ে। বুবলি সেটা করেছেন সহসাই। শাকিব-অপু জুটি সুন্দর একটি অধ্যায় অতিক্রম করছে- এমন সময়ে বুবলির আগমন ‘হঠাৎ’ নয়। বুবলি এসেই কিংখানের ‘হেভিওয়েট’ দুটি ছবির নায়িকা নির্বাচিত হয়ে গেছেন। সেগুলোই মুক্তি পাচ্ছে এই ঈদে। চলচ্চিত্রের খোঁজ-খবর যারা রাখেন, তারা ভাবতেই পারেন, বুবলি অপুর স্থলাভিষিক্ত, বুবলি শাকিবের মনের ছায়া, বুবলি অপুর বিকল্প কেউ…

আর কেউ না হোক, শাকিব নিশ্চয়ই জানতেন যে, অপু বিশ্বাস ‘কিছু কারণে’ তার সঙ্গে দুরত্ব বাড়াচ্ছেন। ‘দুরত্ব’ বাড়ছে এটা বুঝতে পেরেই কি-না কিংখান বুবলিকে আনুষ্ঠানিকভাবে পরিচয় করিয়ে দিলেন সবার সামনে। শাকিবই তাকে ‘শুটার’ ও ‘বসগিরি’ ছবি দুটো জুটিয়ে দিয়েছেন।

অপু বিশ্বাসের স্মৃতি আর বুবলির সঙ্গ শাকিবকে নিশ্চয়ই আরও কৌশলী সৈনিক হতে সাহায্য করবে!    বাংলানিউজ24.কম

আপনার মতামত লিখুন

বিনোদন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ