শুক্রবার,২৩শে জুন, ২০১৭ ইং,৯ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: ভোর ৫:৪৬

নাটোরের গুরুদাসপুর পৌরসভার সাড়ে ১৮ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা বাগাতিপাড়ার দরিদ্র মেধাবী সজনীকে ল্যাপটপ দিলেন ইউএনও পাঁচবিবিতে নগত অর্থ বিতরণ সৈয়দপুরে সুবিধা বঞ্চিতদের পাশে খুচরা পয়সা সংগঠন ইটভাটার কালোধোঁয়ায় ফসলের তিপূরণের দাবিতে কৃষকদের মানববন্ধন লালমনিরহাটে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অধিকার বায়তুল মুকাররমে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের সময়সূচি

অতিরিক্ত মান নিয়ন্ত্রণে কমছে আম রপ্তানি

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: লক্ষ্যমাত্রা দু্ই হাজার টন হলেও এ পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে আম রপ্তানি হয়েছে মাত্র ৩২ টন। কৃষকদের সাথে চুক্তি করলেও আম কিনতে আগ্রহ নেই রপ্তানিকারকদের। মান নিয়ন্ত্রণের নামে কৃষি বিভাগের অতি সতর্কতাকে দুষছেন রপ্তানিকারক ও ক্ষতিগ্রস্ত আমচাষীরা।

রাজশাহীর শামীম আহমেদ। ভালো দামের আশায় পাঁচ লাখ টাকা খরচে আমে ব্যাগিং করেছিলেন। কিন্তু দেখা নেই রপ্তানিকারকদের। দেশীয় বাজারে বিক্রি করলেও এ ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবেন না শামীম।

সাতক্ষীরা, মেহেরপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ বেশিরভাগ জেলার আমচাষীদের অবস্থাই শামীমের মতো। রপ্তানির জন্য রাখা আম নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গেল বছর রপ্তানির আম প্রতি মণ সাড়ে তিন হাজার টাকায় বিক্রি হলেও এবার দামও কম ক্রেতাও নেই।

এ বছর দেশে আম চাষ হয়েছে ২১ লাখ টন। আম উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান অষ্টম হলেও রপ্তানিতে শীর্ষ বিশেও নেই বাংলাদেশ।

এবার আমের মান নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে কেন্দ্রীয় প্যাকিং হাউজে। এখান থেকে অকারণে অনেক আম বাদ দেয়া হয় বলেও অভিযোগ চাষীদের। সরকারের কৃষি বিভাগ বলছে, গেল বছরে রপ্তানি করা আম নিয়ে নানা অভিযোগ দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তাই এ বছর আম রপ্তানির মান নিয়ে বেশি সতর্ক তারা।

২০১৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় আম রপ্তানি। প্রথম বছরে ২৮৮ টন আম রপ্তানি হলেও এ বছর এখন পর্যন্ত রপ্তানি হয়েছে মাত্র ৩২ টন। এতো কম রপ্তানি হলে আন্তর্জাতিক বাজার হাতছাড়া হওয়ার আশঙ্কা করছেন রপ্তানিকারকেরা। –

আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ